সোমবার, ০৮ আগস্ট ২০২২, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯, ০৯ মুহাররম ১৪৪৪ হিজরী

বিনোদন প্রতিদিন

দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ আহত ১৫

সেনবাগে ইউপি নির্বাচন

সেনবাগ (নোয়াখালী) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৯ মে, ২০২২, ৭:০২ পিএম

নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার কেশারপাড় ও মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে নৌকা মার্কা ও স্বতন্ত্র আনারস মার্কার সমর্থকদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। এতে আহত হয়েছে অনন্ত ১৫ জন। ওই হামলা ভাংচুরের ঘটনাটি ঘটেছে রোববার বেলা ১১ টার দিকে সেনবাগ উপজেলা ২নং কেশারপাড় ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড দক্ষিনপাড়া ক্লাব ঘর, দমদমা বাজার, লুধুয়া পোলের গোড়া ও কেশারপাড় ইউনিয়ন পরিষদের সামেন এব্ং উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড দক্ষিন রাজারামপুর গ্রামে।

আহতরা হচ্ছে: কেশারপাড় ইউনিয়নের আনারস মার্কার স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আবু বকর ছিদ্দিক ভূঁইয়ার ছেলে আল-আমিন ভূঁইয়া সুজন (২৫), আবু সাইদ ভূঁইয়া সজল (৩০) আবু রাইজ ভূঁইয়া শোভন (২৩), চৌধুরী (৫০), বিজয় (২৭)। নৌকা মার্কার প্রার্থী বেলাল ভূঁইয়া ছেলে সামছুল আলম ভূঁইয়া স্বপন (৩৩) চেয়ারম্যানের শ্যালক জামাল উদ্দিন (৫০), ভাগ্নে আবদুল জলিল (৩০), নুর ইসলাম (৩০), ফখরুল আমিন ও সাব্বির (১০)। এদের মধে আল আমিন ভূঁইয়া সুজন (২৫), আবু সাইদ ভূঁইয়া সজল (৩০), আবু রাইজ ভূঁইয়া শোভন (২৩) ও চৌধুরীকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহত বাকিদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

৭নং মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী কামাল উদ্দিন মিয়াজী সেনবাগ উপজেলা নির্বাচন অফিসে লিখিত অভিযোগ করেছেন নৌকা মার্কার কর্মী সমর্থকরা তার নির্বাচনী প্রচার কাজে ব্যবহৃত মাইক ও প্রচার যন্ত্রপাতি ভাঙচুর করেছে।

এ ব্যপারে কেশারপাড় ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আবু বকর ছিদ্দিক ভূঁইয়া তার নির্বাচনী অফিস ভাঙচুরের ও কর্মী সমর্থকদের মারধরের অভিযোগ করেছেন তার প্রতিপক্ষ নৌকা মার্কার প্রার্থী বেলাল ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে।

অপর দিকে একই ঘটনায় প্রতিপক্ষ স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর বিরুদ্ধে পাল্টা অভিযোগ করেন নৌকা মার্কার প্রার্থী বেলাল ভূঁইয়া। এছাড়াও কামাল উদ্দিন নৌকা মার্কার প্রার্থীর সমর্তকদের বিরুদ্ধে তার প্রচার মাইক ভাংচুরের অভিযোগ করলেও তার প্রত্যাক্ষান করে নৌকা মার্কার চেয়ারম্যান প্রার্থী ফিরোজ আলম ভূঁইয়া রিগান বলেন জনবিচ্ছিন্ন প্রার্থীরা ভোটারদের নিকট থেকে কোন সাড়া না পেয়ে নিজেরা ঘটনা ঘটিয়ে নৌকার ওপর দায় চাপাচ্ছে।

এব্যাপারে যোগাযোগ করলে সেনবাগ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, দুই পক্ষ থেকে থানায় অভিযোগ দিয়েছে। তদন্তপূর্বক আইনী ব্যবস্থা নেওয় হবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন