ঢাকা, মঙ্গলবার, ০২ জুন ২০২০, ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৯ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

ফুলবাড়ীতে আম-লিচুসহ বোরো ফসলের ব্যাপক ক্ষতি

ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের আঘাত

ফুলবাড়ী(দিনাজপুর) প্রতিনিধি | প্রকাশের সময় : ২২ মে, ২০২০, ১২:২৬ পিএম

করোনা মহামারির কারণে ক্ষতিগ্রস্থ মানুষগুলো যখন বোরো ধানের ক্ষেতসহ আম-লিচুতে ভাগ্য বদলের স্বপ্ন দেখছিল ঠিক তখনই দিনাজপুরের ফুলবাড়ী আশপাশ এলাকায় ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের কারণে আম-লিচুর বাগানসহ বোরো ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।
গত বুধবার সন্ধ্যা ৬টার পর থেকে ঘূর্ণিঝড় আম্পানের প্রভাবে ফুলবাড়ীসহ আশপাশ এলাকায় তীব্র ঝড়ো হাওয়া ও বৃষ্টিতে কাঁচা ঘরবাড়িসহ বোরো ধান,ভূট্রা ও আম-লিচু বাগানের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। একইসাথে ঝড়ে বিদ্যুতের তারে গাছপালা ভেঙ্গে পড়ায় সাময়িকভাবে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায়। এতে রোজাদারদের তারাবির নামাজ সেহ্রী,ইফতারের সময় সাময়িক অসুবিধায় পড়তে হয়।

উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, ঝড়ো হাওয়ায় জমিতে থাকা পাকা বোরো ধানের একেবারেই শুয়ে গেছে। এছাড়াও ঝড়ো হাওয়ায় ভেঙে পড়েছে কাঁচা ঘরবাড়ি,আম-লিচু বাগান ও গাছপালাসহ ঝড়ে হাওয়ায় উড়ে গেছে টিনের চালা। অনেকে এই ঝড়ে খোলা আকাশের মধ্যেই রাত কাটিয়েছে।
কাঁটাবাড়ী গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য একরামুল হক, দক্ষিণ বাসুদেবপুর গ্রামের রইচ উদ্দিন, রাজারামপুর গ্রাামের লোকমান হোসেনসহ অনেকে বলেন, ঝড়ো বাতাসে তাদের ঘরের টিনের চালা উড়ে গেছে।

এদিকে খয়েরবাড়ী এলাকার আমচাষি শাহিনুর ইসলামসহ আম-লিচুর একাধিক বাগান মালিকরা জানান, ঝড়ে কবলে গাছের কাঁচা আম ও লিচুর প্রায় ৯০শতাংশ পড়ে গেছে। একইভাবে বোরো ধান ঘরে তুলতে না পারায় মাঠেই শুয়ে গেছে। তেল-গ্যাস নেতা সৈয়দ সাইফুল ইসলাম জুয়েল বলেন,করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকসহ এই এলাকার মানুষগুলো যখন বোরো ফসলসহ আম-লিচুতে ভাগ্য বদলের স্বপ্ন দেখছিল ঠিক তখন ঘূর্ণিঝড় আম্ফানে আবারো তাদের স্বপ্নভঙ্গ হয়েছে।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হামিম আশরাফ বলেন, এ উপজেলায় ১৪ হাজার ৩০০ হেক্টর জমিতে বোরো ধানের চাষ হয়েছে, ঝড়ে তিন হাজার হেক্টর জমির ধানের ক্ষতির সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। তিনি বলেন, শুধু বোরো ধান নয়,ক্ষতি হয়েছে,আম-লিচু ও ভূট্রারও। তবে কৃষি বিভাগ ক্ষতির পরিমাণ নির্ধারণে মাঠে কাজ করছে।
এদিকে ঝড়ের কারণে ফুলবাড়ীসহ আশপাশ এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ সাময়িক বন্ধ থাকায় নেসকোর ফুলবাড়ী আবাসিক প্রকৌশলী উজ্জল আলী জানান,ঘূর্ণিঝড়ের কবলে অধিকাংশ এলাকায় বিদ্যুতের তারে গাছের ডাল ভেঙে পড়ে তাই সাময়িকভাবে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রাখা হয়। তবে বিদ্যুতের তাঁর-খুটি থেকে দ্রæত গাছপালা সরিয়ে বিদ্যুৎ সংযোগ চালু করা হয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন