মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১০ কার্তিক ১৪২৮, ১৮ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

বিনোদন প্রতিদিন

হলিউডে বয়কট হয়েছেন জনি ডেপ!

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ আগস্ট, ২০২১, ১০:১১ এএম

দাম্পত্য জীবনের ঝড় পেরিয়ে আবারও পর্দায় আসছেন জনি ডেপ; তবে পেছনের দিনগুলো নিয়ে অনুযোগও করেছেন তিনি। ‘পাইরেটস অব দ্য ক্যারিবিয়ান’ তারকার ভাষ্যে, গত কয়েক বছর তার জীবন এক ধরনের পরাবাস্তবতার মধ্য দিয়ে গেছে। তার মনে হচ্ছে, হলিউড তাকে বয়কট করেছে। ব্রিটেনের 'দ্য সান' পত্রিকার প্রকাশকের বিরুদ্ধে মানহানির মামলায় হারার পর 'সানডে টাইমস'-এ প্রথম এই অভিনেতার সাক্ষাৎকার প্রকাশিত হয়েছে; সেখানে জনি তার নতুন সিনেমা 'মিনামাটা' নিয়ে কথা বলেছেন।

'সানডে টাইমস'কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জনি ডেপ জানান, তার সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমা ‘মিনামাটা’ যুক্তরাজ্যে মুক্তি পেলেও যুক্তরাষ্ট্রে পায়নি। এর জন্য তিনি নিজেকে নিয়ে চলমান বিতর্ককে দায়ী করেন। এই সিনেমায় ফটোসাংবাদিক ডব্লিউ ইউজিন স্মিথের চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। পাশাপাশি সিনেমাটির অন্যতম প্রযোজকও তিনি।

সাক্ষাৎকারে জনি তার ছবিতে চিত্রিত গ্রামবাসীদের সম্পর্কে বলেন, "আমরা এই মানুষগুলোকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম যে আমরা শোষণকারী হব না। আমরা আমাদের কথামতো ছবিটির সম্মানের জায়গা অক্ষুণ্ণ রেখেছি। আমরা তো ঠিকই প্রতিশ্রুতি রেখেছি, যারা পরে এসেছে তাদেরও কি তা রাখা উচিত না?"
এরপরেই তিনি বলেন, "হলিউড আমাকে বয়কট করেছে"।

উল্লেখ্য, 'ওয়াইফ বিটার জনি ডেপ' শিরোনামে প্রতিবেদন করে 'দ্য সান' তাদের সংবাদে দাবি করেছিল, সাবেক স্ত্রী ও হলিউড তারকা অ্যাম্বার হার্ডের ওপর শারীরিক নিগ্রহ চালিয়েছেন জনি ডেপ। এরপরেই 'দ্য সান' পত্রিকার প্রকাশকের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করেন জনি ডেপ। সদ্য প্রকাশিত সাক্ষাৎকারে জনি স্মৃতিচারণ করেছেন এসব কিছুরই।

‘পাইরেটস অব দ্য ক্যারিবিয়ান’ তারকার এই দুঃসময় শুরু হয় ২০১৬ সালে দাম্পত্য সঙ্গী অ্যাম্বার হার্ডের সঙ্গে বিচ্ছেদের মধ্য দিয়ে, মাত্র এক বছর আগেই যারা বিয়ে করেছিলেন। বিচ্ছেদের সময় অভিনেত্রী হার্ড অভিযোগ করেছিলেন, জনি ডেপ তাকে মারতেন। এটা শুনে হলিউডে আলোচনার ঝড় বয়ে গিয়েছিল। তবে ডেপ বরাবরই এসব অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে এসেছেন; বর্তমানে অ্যাম্বার হার্ডের বিরুদ্ধে জনির করা ৫০ মিলিয়ন ডলারের একটি মানহানি মামলা চলছে আদালতে। এই দুই তারকার তিক্ত সম্পর্কের আইনি লড়াই কবে পুরোপুরি শেষ হবে তা যেন সময়ই বলবে!

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন