বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৫ মাঘ ১৪২৮, ১৫ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

ধর্ম দর্শন

জিজ্ঞাসার জবাব

প্রকাশের সময় : ১০ মার্চ, ২০১৬, ১২:০০ এএম

১। মোহাম্মদ ফাতহুল বারী ফাইয়্যাজ, খেজুরবাগ
কেরানীগঞ্জ, ঢাকা।
জিজ্ঞাসা : পিতামাতার ওপর সন্তানের মৌলিক অধিকার কি? জানতে চাই।
জবাব : জন্মলগ্ন থেকেই একটা সন্তানের অধিকার শুরু হয়ে যায়। যা তার পিতা-মাতার প্রতি অপরিহার্য। তার একটি নাম চয়ন করা। যা হবে সুন্দর ও অর্থবহ। হাদিস শরিফ যার বর্ণনা দিয়েছে এভাবেÑ হযরত ইবনে আব্বাস (রা.) বলেন, সাহাবায়ে কেরাম বললেনÑ হে আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম : আমরা পিতা-মাতার প্রতি সন্তানের করণীয় সম্পর্কে জানি, তবে পিতা-মাতার ওপর সন্তানের অধিকার বা হক কী? তখন রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বললেন, ‘পিতা-মাতার ওপর সন্তানের অধিকার বা হক হলো তার সুন্দর নাম রাখা এবং তাকে উত্তম শিষ্টাচার শিক্ষা দেয়া।’
অন্যত্র হযরত ইবনে আব্বাস (রা.) বলেন- ‘পিতার প্রতি সন্তানদের অধিকার হলো তার সুন্দর নাম রাখা, তাকে কিতাব তথা আল কোরআন শিক্ষা দেয়া এবং যখন প্রাপ্ত বয়স্ক হবে তখন তাকে বিয়ে করানো। ওই হাদিস পর্যালোচনা করলে দেখা যায়, সন্তানকে ছোটবেলা থেকেই আদর্শ ও নৈতিকতা শিক্ষা দিয়ে গড়ে তুলতে হয়। এক্ষেত্রে যদি পিতা-মাতার অর্থ ব্যয় করতে হয় তাহলে পিতা-মাতাকে সেটা করতে হবে। এটা সন্তানের অধিকার। কেননা, এভাবেই একটা সন্তান নেক বা আদর্শবান হয়ে উঠবে। সে তার পিতা-মাতার মৃত্যুর পরে দোয়া করতে থাকবে। যার সওয়ার পিতা-মাতা কবরে থেকে ভোগ করবে। আর এ জন্য রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করেনÑ যখন কোনো বনী আদম মৃত্যুবরণ করে তখন তিনটি আমল ব্যতীত তার সব আমল বন্ধ হয়ে যায়। (তন্মধ্যে একটি হলো) ওই নেক সন্তান যে তার পিতা-মাতার জন্য দোয়া করবে। তাই পিতা-মাতার উচিত সন্তানকে আদর্শবান হিসেবে গড়ে তোলা। যা হবে পিতা-মাতার জন্য দুনিয়া ও আখিরাতে কল্যাণের উছিলা।
উত্তর দিচ্ছে : মোহাম্মদ আবদুল্লাহ ছাফওয়ান

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন