ঢাকা, শনিবার ২০ জুলাই ২০১৯, ০৫ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৬ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

খেলাধুলা

জোহানেসবার্গের পথে রুবেল

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

অবশেষে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের জন্য ছাড়পত্র পেলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের পেসার রুবেল হোসেন। গতকাল বিকেলে দীর্ঘ নাটকীয়তার অবসান ঘটিয়ে রুবেলকে এনওসি প্রদান করেছে দক্ষিণ আফ্রিকার ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ। রুবেলের ছাড়পত্র পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুসও। বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসান জানান, ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা তাদের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সর্বোচ্চ পর্যায়ে যোগাযোগ করে সমস্যা সমাধানে সহায়তা করেছে। জানা গেছে, গতকাল রাত সোয়া একটার ফ্লাইটে দলের সঙ্গে যোগ দিতে দক্ষিণ আফ্রিকার পথে উড়াল দিয়েছে তাকে বহনকারী বিমানও। এনওসি পাওয়ার পর রুবেল সংবামাধ্যমের সামনে উচ্ছ¡াস প্রকাশ করেন এভাবে, ‘আমি ইতিমধ্যে ক্লিয়ারেন্স পেয়ে গেছি এবং দলের সাথে যোগ দেয়ার জন্য টিকিটের অপেক্ষা করছি। এটি আমার জন্য ভিন্নধর্মী একটি অভিজ্ঞতা।’ কতটা দুশ্চিন্তায় কেটেছে এ কয়টা দিন, সেটি বলতে গিয়ে একগাল হেসে রুবেল জানালেন, ‘টেনশন করার কী আছে! নামের কারণে যা হলো, নামই দেখছি বদলে ফেলতে হবে!’
জমাট এক নাটকই হয়ে গেল আধা ঘণ্টার মধ্যে। রুবেলের জন্য অপেক্ষা না করে বিকল্প হিসেবে কামরুল ইসলাম রাব্বিকে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছিল টিম ম্যানেজমেন্ট ও প্রধান নির্বাচক। জাতীয় লিগের দ্বিতীয় রাউন্ড খেলতে এই মুহূর্তে খুলনায় থাকা কামরুল গতকাল সন্ধ্যায় ঢাকা ফেরার টিকিটও করে ফেলেছিলেন। কিন্তু এরই মধ্যে খবর, ছাড়পত্র পেয়েছেন রুবেল।
এর আগে গত শনিবার মুশফিকুর রহিমের নেতৃত্বে দক্ষিণ আফ্রিকার উদ্দেশ্যে যাত্রা করে বাংলাদেশ দল। বোর্ডিং পাস না পাওয়ায় বাংলাদেশ টেস্ট দলের সঙ্গে জোহানেসবার্গ যেতে পারেননি রুবেল। সতীর্থদের মতো বৈধ ভিসা থাকার পরও দক্ষিণ আফ্রিকার ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষের নতুন নিয়ম অনুযায়ী বিমানে ওঠার জন্য পাঠানো তালিকাতেও যাত্রীর নাম থাকতে হয়। সেখানে ছিল না রুবেলের নাম। বোর্ডিং পাস না পাওয়ায় বিমানবন্দর থেকে বাসায় ফিরে যান তিনি। কারণ হিসেবে পরে জানা যায়, রুবেল হোসেন নামক আরেক ব্যক্তির নাম দক্ষিণ আফ্রিকার ইমিগ্রেশনে কালো তালিকাভুক্ত থাকায় পেসার রুবেলকে এয়ারপোর্টে আটকে দেয় দক্ষিণ আফ্রিকার ইমিগ্রেশন বিভাগ। তাঁরা মূলত ভুল করে পেসার রুবেলের সাথে সেই অভিযুক্ত ব্যক্তিকে মিলিয়ে ফেলেছিলো। এরপর বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) দক্ষিণ আফ্রিকার অভিবাসন সংস্থার সঙ্গে যোগাযোগ করে এবং রুবেলের পরিচয় নিশ্চিত করার জন্য প্রমাণও পাঠায়। তারই ভিত্তিতে এবার রুবেলকে এনওসি প্রদান করলো দেশটির ইমিগ্রেশন বিভাগ।
উল্লেখ্য দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের আগে আজ থেকে একটি তিন দিনের প্রস্তুতি ম্যাচে অংশ নিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। সময়মতো এনওসি না পাওয়ায় এই ম্যাচে খেলতে পারেন নি ২৭ বছর বয়সী রুবেল। তবে এবার ছাড়পত্র পাওয়ায় আগামী ২৮ তারিখ থেকে শুরু হতে যাওয়া প্রথম টেস্টে যে তিনি খেলছেন তা একপ্রকার নিশ্চিত। কারণ দক্ষিণ আফ্রিকার বাউন্সি উইকেটে রুবেলের পেস যে যথেষ্ট কার্যকরী হবে তা বলাই বাহুল্য।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন