ঢাকা, শনিবার, ০৮ আগস্ট ২০২০, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৭ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

স্থায়ী জামিন পেলেন ইনকিলাব সম্পাদক এ এম এম বাহাউদ্দীন

দুদকের হয়রানিমূলক মামলা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৬ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:০১ এএম

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা হয়রানিমূলক মামলায় দৈনিক ইনকিলাব সম্পাদক এ এম এম বাহাউদ্দীন স্থায়ী জামিন পেয়েছেন। গতকাল বুধবার ঢাকা মহানগর দায়রা জজ (বিশেষ আদালত) কেএম ইমরুল কায়েশ এ জামিন মঞ্জুর করেন। এর আগে গত ১৮ নভেম্বর বিচারপতি ওবায়দুল হাসান এবং বিচারপতি একেএম জহিরুল ইসলামের ডিভিশন বেঞ্চ তাকে অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দেন।

গত বছর সেপ্টেম্বর থেকে নভেম্বর পর্যন্ত দুদকের নানা অনিয়ম, দুর্নীতি এবং স্বেচ্ছাচারিতার বিষয়ে কয়েকটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে ইনকিলাব। এ পরিপ্রেক্ষিতে গত ৪ নভেম্বর ইনকিলাব সম্পাদকের বিরুদ্ধে দুদক আইনের ২৬(২), ২৭ (১) ধারায় মামলা ঠুকে দেয়া হয়। এজাহারে ইনকিলাব সম্পাদকের বিরুদ্ধে ‘সম্পদের তথ্য গোপন’ এবং ‘জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জন’র অভিযোগ আনা হয়।

তবে গতকালের জামিন শুনানিতে তার কৌঁসুলি সৈয়দ আহমেদ গাজী বলেন, দুদক এজাহারে যে সম্পদের মালিক এ এম এম বাহাউদ্দীন বলে উল্লেখ করা হয়েছে তিনি আদৌ এসব সম্পদের মালিক নন। দুদক তার বিষয়ে অনুসন্ধান শুরুর বহু আগেই এসব সম্পত্তি হস্তান্তর করে তিনি নিঃস্বত্ববান হয়ে গেছেন। অন্য ব্যক্তির সম্পত্তিকে দুদক এ এম এম বাহাউদ্দীনের সম্পত্তি হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। এজাহারে দুদকই বরং তথ্য গোপন করেছে। মিথ্যা তথ্য দিয়ে হয়রানিমূলকভাবে মামলা দায়ের করেছে।

তিনি বলেন, ইনকিলাব সম্পাদকের বিরুদ্ধে দুদক ২০১৭ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি অনুসন্ধান শুরু করে। অথচ এর আগেই তিনি সম্পত্তি বিক্রি করে নিঃস্বত্ববান হয়েছেন। ভালোভাবে অনুসন্ধান না করেই যেনতেন প্রকারে একটি মামলা ঠুকে দেয়া হয়েছে। ইনকিলাব সম্পাদককে সামাজিকভাবে হেয়প্রতিপন্ন করা, তার মানহানি এবং হয়রানির উদ্দেশেই এ মামলা। আমরা আশা করছি, সুষ্ঠু তদন্ত হলে কমিশন এ মামলা থেকে তাকে অব্যাহতি দেন। এ হেন হয়রানিমূলক মামলায় তার স্থায়ী জামিন প্রত্যাশা করছি।

এর জবাবে দুদকের কৌঁসুলি মোশাররফ হোসেন কাজল বলেন, এ এম এম বাহাউদ্দীনের বিরুদ্ধে দুদক অনুসন্ধান শুরু করেছে ২০১৬ সালে। তার এ বক্তব্য নাকচ করে দিয়ে আদালত বলেন, এজাহার তো সেটি বলে না। এখানে ২০১৭ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি ইনকিলাব সম্পাদককে নোটিস করা হয়েছে- মর্মে উল্লেখ রয়েছে। নোটিস করার আগে দুদক কি করেছে সেটি হিসেবে আসতে পারে না। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত এ এম এম বাহাউদ্দীনের স্থায়ী জামিন মঞ্জুর করেন।
উল্লেখ্য, গত ৪ নভেম্বর ১ কোটি ৭০ লাখ ২৯ হাজার ৪৩৩ টাকার জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জন এবং ৮৯ লাখ ১৯ হাজার টাকার সম্পদের তথ্য গোপন করার অভিযোগ এনে মামলা করে দুদক।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (14)
জন্মভুমি ছাতক ১৬ জানুয়ারি, ২০২০, ২:০৬ এএম says : 0
দুদকের বিরুদ্ধে ব্যবসথা নেওয়া দরকার।
Total Reply(0)
সত্য বলবো ১৬ জানুয়ারি, ২০২০, ২:০৬ এএম says : 0
ভালো খবর। ধন্যবাদ
Total Reply(0)
কামাল ১৬ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:৫৯ এএম says : 0
সাংবাদিক ভাইদের উপরে হাই প্রেশার আসছে, ওরে ভয়নেই বাংলাদেশের ১৬ কোটি মানুষ সাংবাদিকদের পক্ষেই আছে.
Total Reply(0)
Amirul Khan ১৬ জানুয়ারি, ২০২০, ১:০০ এএম says : 0
আলহামদুলিল্লাহ, ভালো খবর। আমি মনে করি দুদক নিজেই দুর্নীতিগ্রস্ত। দুদকের কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে সাঁড়াশি অভিযান চালানো উচিত।
Total Reply(0)
Faruk Khan ১৬ জানুয়ারি, ২০২০, ১:০০ এএম says : 0
আমার ব্যাক্তি গত ভাবে মনে হয় দুদকের মধ্যে সচ্ছতার আনেক আভাব আছে। সাধারন মানুষের আস্থা আর্জনে তারা ব্যর্থ হয়েছে।
Total Reply(0)
মিরাজ ১৬ জানুয়ারি, ২০২০, ২:১৫ পিএম says : 0
বাহাউদ্দীন ভাই আপনি এগিয়ে যান । এদেশের মানুষ আপনাদের সাথে আছেন
Total Reply(0)
মাসুদ ১৬ জানুয়ারি, ২০২০, ২:১০ পিএম says : 0
একজন সম্মানিত ব্যক্তিকে এভাবে হয়রানি করার কোন মানে হয় না।
Total Reply(0)
রাশেদ ১৬ জানুয়ারি, ২০২০, ২:১১ পিএম says : 0
দুদকের হয়রানিমূলক মামলার তিব্র নিন্দা জানাচ্ছি
Total Reply(0)
সাইফুল ইসলাম ১৬ জানুয়ারি, ২০২০, ২:১২ পিএম says : 0
নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকতেই দুদক এসব করছে
Total Reply(0)
আসমা ১৬ জানুয়ারি, ২০২০, ২:১৩ পিএম says : 0
এমন মামলা করে ইনকিলাব সম্পাদক এ এম এম বাহাউদ্দীন সাহেবকে সত্য বলা থেকে বিরত রাখা যাবে না।
Total Reply(0)
জাফর ১৬ জানুয়ারি, ২০২০, ২:১৩ পিএম says : 0
আশা করি শিঘ্রই তিনি এই মামলা থেকে মুক্তি পাবেন।
Total Reply(0)
তানিয়া ১৬ জানুয়ারি, ২০২০, ৫:৩৭ পিএম says : 0
কাউকে হয়রানি করা দুদকের কাজ হতে পারে না।
Total Reply(0)
পারভেজ ১৬ জানুয়ারি, ২০২০, ৫:৩৮ পিএম says : 0
দুদক আসল কাজ এখন এসব করে বেড়ায়
Total Reply(0)
নাবিল ১৬ জানুয়ারি, ২০২০, ৫:৩৮ পিএম says : 0
দেশে এত দুর্নীতিবাজ থাকতে ভালো মানুষের পিছনে লাগলো দুদক
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন